আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল হক হানিফের শিক্ষক বিশিষ্ঠ সাহিত্যিক অধ্যাপক মোহম্মদ হবীবুল্লাহ’র ইন্তেকাল

প্রকাশকাল- ২১:৪৪,অক্টোবর ২১, ২০১৭,বিনোদন বিভাগে

Ishurdi-21.10.2017(Professor Hobibullah)স্টাফ রিপোর্টার,ঈশ্বরদী ॥ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রিয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল হক হানিফ এবং সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবি নেতা এ্্যাডঃ রবিউল আলম বুদুর শিক্ষক,ছড়াকার,গল্পকার ও বিশিষ্ঠ সাহিত্যিক অধ্যাপক মোহম্মদ হবীবুল্লাহ (৮০) শনিবার দুপুর দেড়টায় বাঘইলস্থ নিজ বাড়িতে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি—রাজিউন)। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী,৩ ছেলে ,৪ মেয়ে রেখে গেছেন। দীর্ঘদিন তিনি বার্ধ্যক্ষ জনিত রোগে ভুগছিলেন। তাঁর মৃত্যুতে আওয়ামীলীগের কেন্দ্রিয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল হক হানিফ, সাবেক এমপি সিরাজুল ইসলাম সরদার,সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবি নেতা এ্্যাডঃ রবিউল আলম বুদু,ব্যারিষ্টার সৈয়দ আলী জিরু,জাতীয় সাংবাদিক সোসাইটির সভাপতি টিএ পান্নাসহ বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে গভীর শোক প্রকাশ করা হয়েছে। মৃত্যুর পর মরহুমের মরদেহ রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের হিমাগারে রাখা হয়েছে। ক্যানাডা প্রবাসী মেয়েরা দেশে আসার পর আগামি ২৪ অক্টোবর দাফন সম্পন্ন করা হতে পারে।
অধ্যাপক মোহম্মদ হবীবুল্লাহ ১৯৬৩ সালে পাকশীর ঐতিহ্যবাহি চন্দ্রপ্রভা বিদ্যাপীঠ স্কুলের প্রধান শিক্ষক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। পরবর্তীকালে পাবনা মহিলা কলেজ,রাজশাহী নিউ গভঃ ডিগ্রী কলেজ এবং রাজশাহী কলেজে ইংরেজি বিভাগে অধ্যাপনা করেন। ১৯৯৬ সালে রাজশাহী কলেজ হতে অবসর গ্রহণ করেন । তিনি অসংখ্য ছড়া ও গল্পের বইয়ের পাশাপাশি পাকশী-ঈশ্বরদী ঃ ইতিহাস ও ঐতিহ্য, এ স্কুল উইথ ডিফারেন্স, নন্দন তত্ত্ব ভিত্তিক সত্য ও সুন্দর, ভার্সেস ফর ইংলিশ স্পিস ড্রিল নামে বই লিখেছেন।
কোন অঞ্চলের সামাজিক ইতিহাসের অপরিহার্য উপাদান গুলি দৃশ্যপটে আনার মত জটিল কাজও তিনি করেছেন লেখনীর মাধ্যমে। পাকশী-ঈশ্বরদী ঃ ইতিহাস ও ঐতিহ্য নামক বইটিতে তিনি মূলতঃ তাঁর নিজ অঞ্চলের নৈসর্গিক ও সামাজিক পরিবর্তনের ধারাবাহিক ইতিহাস রক্ষা করায় সচেষ্ট ভ’মিকা পালন করেছেন। তাঁর সামাজিক ইতিহাসের সময়কাল গোটা বিংশ শতাব্দি এবং ঈশ্বরদী অঞ্চল ।