ঈশ্বরদীর রূপপুরে নির্মাণাধীন পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের গ্যাংট্রি ক্রেন, ওয়ার্কশপ ভবন বিদ্ধস্থ হওয়ার ঘটনায় ঝটিকা সফরে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রীসহ প্রকল্পের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তারা

প্রকাশকাল- ২০:৪১,এপ্রিল ২১, ২০১৭,রাজশাহী বিভাগ, স্লাইডশো বিভাগে

rupপাবনা সংবাদদাতাঃ
ঈশ্বরদীর রূপপুরে পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প এলাকায় নির্মাণাধীন গ্যংট্রি ক্রেন ভেঙ্গে পড়ে ওয়ার্কশপ ভবন বিদ্ধস্থ হওয়ার ঘটনায় শুক্রবার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ড. ইয়াফেস ওসমান ঝটিকা সফরে এসে সরেজমিনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এসময় তাঁর সাথে ছিলেন বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনের চেয়ারম্যান ড. পকৌশলী মঞ্জুরুল হক, সাবেক চেয়ারম্যান ও নিউক্লিয়ার পাওয়ার গ্রীড কোম্পানীর উপদেষ্টা প্রকৌশলী মনিরুল ইসলাম, প্রকল্প কর্মকর্তা ড. সৌকত আকবর, সাইট ইনচার্জ রুহুল কুদ্দুস প্রমূখ।
পরিদর্শন শেষে মন্ত্রী বলেন, এই সংবাদ পেয়ে নিজ উদ্যোগে আমি স্বচক্ষে দেখার জন্য এসেছি। ঘটনার বর্ণনা দিয়ে তিনি জানান, বুধবার রাত ১১টার দিকে এই ঘটনা ঘটেছে। আবহাওয়া খারাপ থাকায় তখন প্রকল্প এলাকায় কেউই ছিল না। আবহাওয়ার পূর্বাভাষ না পাওয়ায় রাশিয়ান কাজ শেষে যাওয়ার সময় গ্যাংট্রি ক্রেনের এ্যংকার (রশি দিয়ে বেঁধে রাখা) করে না যাওয়ায় বাতাসের ধাক্কায় গ্যাংট্রি ক্রেন রেল লাইনের উপর দিয়ে চলতে চলতে লাইন ছেড়ে নীচে নেমে পাশের নির্মাণাধীন ওয়াকশপের উপর ভেঙ্গে পড়ে। ওই সময় কেউ না থাকায় প্রাণহানি কোন ঘটনা ঘটেনি। এজন্য তিনি মহান আল্লাহপাকের শুকরিয়া আদায় করেন। ক্ষতির প্রসংগে তিনি বলেন, সামান্য ঘটনা। ওয়ার্কশপ ভবন টিন ও এ্যঙ্গেল দিয়ে তৈরী। মূল রিএ্যক্টর বসানোর কাজতো এখনও শুরুই হয়নি। এঘটনায় আমাদের সরকারের কোন ক্ষতি হয়নি হয়েছে রাশিয়ান ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের বলে তিনি জানান। মন্ত্রী আরো জানান, চুক্তি অনুযায়ী প্রকল্পের নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার পরও দেড় বছর পর্যন্ত রাশিয়ান কর্তৃপক্ষ যেকোন ক্ষতি তাদের নিজ খরচে পূর্নবাসন করবে। পরে মন্ত্রী রাশিয়ান এ্যটমষ্ট্রয় এক্সপোর্টের কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠক করেন। এসময় মন্ত্রী এই ধরণের কোন ঘটনা পরবর্তীতে আর যাতে না ঘটে সে ব্যাপারে আরো সতর্ক থাকার জন্য দিক নির্দেশনা ও পরামর্শ দেন।
উল্লেখ্য, গত বুধবার রাতের ঝড়ে ঈশ্বরদীর রূপপুরে পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প এলাকায় নির্মাণাধীন গ্যংট্রি ক্রেন এ্যংকার না করায় বাতাসের তোড়ে রেললাইন দিয়ে গড়িয়ে নীচে ওয়ার্কশপ ভবনের উপর ভেঙ্গে পড়ে। এছাড়া সাইট অফিসের নির্মাণাধীন গ্রীণ সিটি এলাকায় একটি গাছ ভেঙ্গে পড়ে ৭০ ফিট পুরাতন সীমানা প্রাচীর ভেঙ্গে পড়ে। প্রকল্পের নির্মাণ কাজের জন্য রেল লাইনের উপর একটি সুদীর্ঘ গ্যাংট্রি ক্রেন রাশিয়ানরা নির্মাণ করছিল। বাতাসের প্রবল বেগে গ্যংট্রি ক্রেনটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে চলতে চলতে এক পর্যায়ে ভেঙ্গে ওয়ার্কশপের উপর পড়ে। গ্যাংট্রি ক্রেনের ওজনে এসময় মাটিও ঢেবে যায়।