চাঁদনী রাতে

প্রকাশকাল- ১৯:৫৪,অক্টোবর ১৩, ২০১৭,অনাবিল সাহিত্য বিভাগে

জান্নাতুল বাকী

 

একদা এক চাঁদনী রাতে,
একটি বিয়ের নিমন্ত্রণে।
এ গ্রাম থেকে ও গ্রামে,
মধ্যেখানে মাঠ পেরিয়ে।
আমরা সবাই দলে দলে,
কখনো বা ক্ষেতের আলে।
কেউবা আবার পাথালে চলে,
যে যার সাথে মিলে মিলে।
চাঁদের আলোয় মাটির পথে,
কখনো মাটির ঢেলার সাথে।
কমান্ড ছাড়াই জনে জনে,
পথ চলেছে আপন মনে।

এমনি এক সুখের ক্ষণে,
তুমি ছিলে আমার সনে।
অন্যেরা সব কায়া দেখে,
কেউ না মোদের মন দেখে।
দুজনকে দুজন জানি,
কে তুমি আর কে আমি।

গাছের ছায়ে,পথে পথে,
পায়ে পায়ে,যেতে যেতে,
হাতে হাত, ধরতে ধরতে,
চাঁদের আলোয় চলতে চলতে,
নানান কথা বলতে বলতে,
হাজার কথা শুনতে শুনতে,
কিছু কথা জানতে জানতে,
মাঝে মাঝে মানতে মানতে,
কিছু শুনে হাসতে হাসতে,
কিছু সময় রাগতে রাগতে,
সুখের ভেলায় ভাসতে ভাসতে,
ভবিষ্যৎ ভাবতে ভাবতে,
গন্তব্যে যেতে যেতে,
কি যে সুখ পেতে পেতে,
এমনি এক চাঁদনী রাতে।

তুমি আমায় বিয়ে বাড়ির মিষ্টি দিলে,
সে স্মৃতি মন না ভুলে।
তোমার আমার এসব দেখে,
পূর্ণিমা চাঁদ মুচকি হাসে।

সেই স্মৃতি ভুলতে পারি?
চাঁদনী রাতে মনে করি।
ক্ষণে ক্ষণে, মনে মনে,
খুশী ছড়ায় আমার প্রাণে।

সবার মনে চাঁদনী আসুক,
সুখের ভেলায় সবাই ভাসুক।
সাগরে যেমন জোয়ার আসে,
সুখ থাকুক সবার পাশে।
তাই দেখে চাঁদ অট্ট হাসুক।
পৃথিবী ও হাসতে থাকুক।