চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় সাইফুল ও রুবেলের রমরমা ইয়াবা ব্যাবসা

প্রকাশকাল- ০৯:৩৫,অক্টোবর ১২, ২০১৭,খুলনা বিভাগ বিভাগে

আব্দুর রহমান(জসিম),চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি:-
চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার এক সময়ের রক্তাক্ত জনপদখ্যাত নতিপোতা ইউনিয়নের হোগলডাঙ্গা গ্রামে প্রশাসনের চোখ ফাকি দিয়ে চলছে রমরমা ইয়াবা ও ফেন্সিডিল ব্যবসা। যার কারনে এলাকায় অপরাধমুলক কর্মকান্ড বেড়ে গিয়েছে। যুকরা হচ্ছে বিপথগামী
অনুসন্ধানে জানা গেছে,দামুড়হুদার নতিপোতা ইউনিয়নের হোগলডাঙ্গা গ্রামের উত্তর পাড়ার মোতালেবের ছেলে রুবেল (২৮) ও রহমানের ছেলে সাইফুল (৩০) পুলিশের চোখ ফাকি দিয়ে দীর্ঘদিন থেকে ইয়াবা ও ফেন্সিডিলের রমরমা ব্যবসা চালিয়ে আসছে। শুধু তাই নয় এলাকায় জনশ্রুতি আছে রুবেল ও সাইফুল বর্তমান সময়ের সব চাইতে বড় ইয়াবা ডিলার। এদের সাব ডিলার হিসাবে আছে কুড়ুলগাছি ইউনিয়ন প্রতাপপুর গ্রামের মৃত আকছেদ আলীর ছেলে হাফিজুর (৩৫) ও মৃত আ:মজিদ (বাক্কা বুড়োর) ছেলে মিজান (৩২)। প্রতাপপুরের হাফিজুল ও মিজান এলাকার পাইকারী ইয়াবা ব্যবসায়ী হিসাবে ব্যপক পরিচিতি লাভ করেছে। হাফিজুল ও মিজানের আরেক জন মহাজন চন্ডিপুর গ্রামের বদর উদ্দীন বুদো বর্তমানে জেল হাজতে থাকায় ইয়াবা ব্যবসায় একটু মন্দা ভাব যাচ্ছে বলে এলাকায় অনেকেই কানা ঘুষা করছে। উক্ত এলাকার এসব ইয়াবা ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে মুখ খুলতে সাহস পায় না এলাকাবাসী।
এব্যপারে এলাকাবাসী মনে করেন, দামুড়হুদা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু জিহাদ সাহেবের ভূমিকায় এলাকার সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ীরা যে ভাবে নির্মূূল হয়েছে তাতে করে আড়ালে আবডালে থাকা এসব মাদক ব্যবসায়ীরাও রেহায় পাবেনা তার হাত থেকে। এলাকার সুধিজনের অনেকেই মনে করেন পুলিশ পদক পাওয়া চুয়াডাঙ্গা জেলার নবাগত পুলিশ সুপার মাহাবুবুর রহমান সাহেব আমাদের জেলাকে মাদক ও সন্রাস মুক্ত জেলা ঘোষনা করে, ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে মাদকের ভয়াল কালোছায়া থেকে রক্ষা করবেন।