তাড়াশে উন্নয়ন মেলায় আসলেন না স্বাস্থ্য প.প কর্মকতা !

প্রকাশকাল- ২২:২৯,জানুয়ারি ১২, ২০১৮,চলনবিলের সংবাদ বিভাগে

তাড়াশ, প্রতিনিধি ঃ সিরাজগঞ্জের তাড়াশে বৃহস্পতিবার ৩ দিন ব্যাপি উন্নয়ন মেলা শুরু হলেও স্বাস্থ্য বিভাগের কর্ণধার উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প কর্মকর্তা এহিয়া কামাল মেলায় আসলেন না। এমন কি তিনি গত দু’দিন অফিসও করেন নি। প্রথম দিন মেলার ষ্টলে দায়িত্বপ্রাপ্ত চিকিৎসক ডা.সজিব রায় একাই সামলিয়েছেন মেলার ষ্টলও হাসপাতালের রোগী। এতে অফিস পাড়ায় ব্যাপক আলোচনা -সমালোচনার ঝড় উঠেছে। জানা গেছে,তাড়াশ উপজেলার ৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা ভেঙ্গে পড়েছে। ১৭ জন চিকিৎসক পদের বিপরীতে মাত্র ৩ জন চিকিৎসক রয়েছেন। এই ৩ জনের উপরেই উপজেলার প্রায় ৩ লক্ষাধিক মানুষের স্বাস্থ্যসেবা নির্ভরশীল। জানা গেছে,উপজেলায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে ৩ দিন ব্যাপি উন্নয়ন মেলা শুরু হয়েছে। এতে ২৭ টি ষ্টলে সরকারের বিভিন্ন ক্ষেত্রে উন্নয়ন প্রর্দশিত হচ্ছে এবং সকল বিভাগের কর্মকর্তা উপস্থিত থেকে দর্শনার্থীদের বিভিন্ন জানার বিষয় গুলো বুঝিয়ে দিচ্ছেন এতে জমে উঠেছে মেলার ষ্টলগুলো। কিন্তু উপজেলা স্বাস্থ্য বিভিাগের ষ্টলে একমাত্র চিকিৎসক ডা.সজিব রায় ছাড়া আর কেউ নেই। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, অপর চিকিৎসক ডা. শিমুল তালুকদার ও ডা.সজিব রায় ছাড়া হাসপালে কোন চিকিৎসক নেই। অপর দিকে শুক্রবার ডা.সজিব রায় স্বাস্থ্য বিষয়ক কিছু উপকরন নিয়ে ছুটছেন মেলা স্থলে । আরো জানা যায়, গত দু’দিনে উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প কর্মকর্তা এহিয়া কামাল অফিসেই আসেন নি। এমনকি উন্নয়ন মেলার বিষয়ে তার বিভাগের কোন প্রস্তুতি ও ছিলনা। শুধু মাত্র ডা.সজিব ও ডা.শিমুল তালুকদার তরিঘড়ি করে মেলার ষ্টলটি সাজালেও সেখানে প্রতিষ্ঠানের প্রধান উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প কর্মকর্তা এহিয়া কামাল কোন দায়িত্বই পালন করেন নি। অভিযোগ রয়েছে,তিনি দায়িত্ব পালনে চরম উদাসিন। এতে উপজেলার স্বাস্থ্যসেবা ভেঙ্গে পড়েছে এবং উন্নয়ন মেলার ষ্টলে স্বাস্থ্য বিভাগের করুন হাল বিরাজ করছে। এ প্রসঙ্গে উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প কর্মকর্তা এহিয়া কামাল বলেন,আমি ছুটিতে আছি এর বেশী আর না বলেই ফোন কেটে দিয়েছেন। তবে সিরাজগঞ্জ সিভিল সার্জন ডা. কাজী শামিম হোসেন বলেন, বিষয়টি তিনি জেনে ব্যবস্থা নেবেন।