পাবনায় এক ব্যাক্তিকে গুলি করে হত্যা

প্রকাশকাল- ২২:৪৭,নভেম্বর ২৪, ২০১৭,রাজশাহী বিভাগ বিভাগে

গুলি করে হত্যামোবারক বিশ্বাস, পাবনা থেকে ঃ পাবনার বেড়া উপজেলার আমিনপুর থানার ঢালারচর ইউনিয়নে সবুজ মন্ডল (৪০) নামের এক ব্যাক্তিকে গুলি করে হত্যা করেছে চরমপন্থি সন্ত্রাসীরা। আজ শুক্রবার রাত ৮টার দিকে ওই ইউনিয়নের দূর্গাপুর খানকাপাক বাজারে এ ঘটনা ঘটে। নিহত সবুজ মন্ডল দূর্গাপুর গ্রামের মৃত লোকমান মন্ডলের ছেলে। তিনি ওই ইউনিয়নের ৯ন ওয়ার্ডে গতবার ইউপি সদস্যপদে নির্বাচন করে পরাজিত হয়েছিলেন। পাবনার সুজানগর সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার রাবিউল ইসলাম বলেন, রাত ৮ টার দিকে দূর্গাপুর খানকাপাক বাজারের লাল মিয়ার দোকানে বসে কথা বলছিলেন সবুজ।

এ সময় কয়েকজন এসে তাকে টেনে-হিঁচড়ে দোকান থেকে বের করে সবার সামনে গুলি করে হত্যা করে। সন্ত্রাসীরা যাওয়ার সময় সর্বহারা দলের শ্লোগান দিতে থাকে।
এ সময় বাজারের সকল দোকানপাট বন্ধ করে লোকজন দিকবিদিক ছুটাছুটি করতে থাকে।
নিহত সবুজ ওই এলাকার অপর একটি চরমপন্থি সংগঠন জুলহাস বাহিনীর আঞ্চলিক নেতা ছিলেন। এলাকায় আধিপত্য বিস্তার ও পূর্ব শক্রতার জেরে এই হত্যাকান্ড সংঘটিত হয়েছে বলে জানান সহকারী পুুলিশ সুপার।
এঘটনায় এলাকায় থমথমে পরিবেশ বিরাজ করছে। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন। পাবনা জেলার বেড়া উপজেলার আমিনপুর থানার ঢালারচর ইউনিয়ন চরমপন্থি অধ্যুষিত দুর্গম চরাঞ্চল। আধিপত্য বিস্তার ও অন্তকোন্দেলে ওই এলাকায় প্রায়ই হামলা-পাল্টা হামলা ও হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে থাকে।
এর আগে চরমপন্থীদের ধরতে গিয়ে পুলিশের এসআই হেদায়েত গুলিতে নিহত হন। এছাড়া ২০১০ সালের ২০ জুলাই চরমপন্থিদের গুলিতে তিন পুলিশসহ চারজন নিহত হন। পাবনা জেলা শহর থেকে ৭০ কিলোমিটার দূরে এই চরাঞ্চলকে সন্ত্রাসী ও অপরাধীরা নিরাপদ আশ্রয় হিসেবে ব্যবহার করে।