প্রেমিকের হাত ধরে প্রবাসীর স্ত্রী উধাও

প্রকাশকাল- ১৫:৫২,অক্টোবর ১১, ২০১৭,রাজশাহী বিভাগ বিভাগে

Sirajgonj phoroসিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি:
প্রেমের টানে উধাও সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে প্রবাসী স্বামীর রোজগারের প্রায় আড়াই লাখ টাকা ও প্রায় আড়াই ভরি স্বর্ণালংকার নিয়ে পরকীয়া প্রেমিক রাসেল আহমে¥দের সাথে প্রবাসীর স্ত্রী ও রাশিদাজ্জোহা মহিলা কলেজের দ্বাদশ শ্রেনীর ছাত্রী অনামিকা খাতুন (২০) পালিয়ে যাবার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

স্থানীয়সূত্রে জানা গেছে,বেলকুচি উপজেলার রাজাপুর ইউনিয়নের ব্রাক্ষম বাড়িয়া গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে শিংগাপুর প্রবাসী সেলিম রেজার সাথে ৪ বছর পূর্বে সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার সর্দার পাড়া মহল্লার আলমগীর হোসেনের মেয়ে অনামিকা খাতুনের বিয়ে হয়। তাদের সংসারে অভাব অনটনের করনে প্রায় ৩ বছর পূর্বে জীবিকার তাগিদে সেলিম রেজা বিদেশ যায়। স্বামীর অনুপস্থিতির সুযোগে তার স্ত্রী অনামিকা খাতুন একই শহরের হোসেনপুর মহল্লার রাসেল আহম্মেদের সাথে পরকীয়ায় জড়িয়ে পরে। পরকীয়ার কারণে স্বামীর পাঠানো টাকা ইচ্ছেমত খরচসহ প্রেমিক রাসেল আহম্মেদকে দিত।

গত (৯ অক্টোবর) সোমবার শহরের সর্দারপাড়া মহল্লার বাবার বাড়ি থেকে অনামিকা খাতুন কলেজ যাবার কথা বলে স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ টাকা নিয়ে পরকীয়া প্রেমিক রাসেলের হাত ধরে অনামিকা পালিয়ে যায়। বহু স্থানে খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে প্রবাসী সেলিম রেজার পিতা আব্দুস সালাম সরকার বেলকুচি থানা একটি অভিযোগ দায়ের করেছে।

এ বিষয়ে অনামিকার বাবা আলমগীর হোসেন বলেন, আমার মেয়ে বাড়িতে নেই তবে কোথায় আছে কার কাছে আছে সে বিয়য়ে আমি অবগত।

পরকীয়া প্রেমিক রাসেল আহম্মেদ বলেন,অনামিকা এখন আমার স্ত্রী তার আগের স্বামীকে ডির্ভোস দিয়েছে অনামিকা আমরা বিয়ে করে সংসার করছি। সে আরো বলেন, অনামিকার আগের স্বামী বিদেশ যাবর পর থেকে তার কোন খোঁজ খবর নিত না অনামিকার কোন খরচ সে দিত না। তাই সেলিম রেজাকে ডির্ভোস দিয়ে আমাকে বিয়ে করেছে।