রাজশাহীতে রিপোর্টার্স ইউনিটিতে ছাত্রলীগের হামলা ও কার্যালয়ে তালা

প্রকাশকাল- ২০:৫৬,ডিসেম্বর ১১, ২০১৭,রাজশাহী বিভাগ বিভাগে

ছাত্রলীগনাজিম হাসান,রাজশাহী প্রতিনিধি:
রাজশাহী কলেজ রিপোর্টার্স ইউনিটির কার্যালয়ে হামলা চালিয়েছেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি টাঙানো না থাকায় এ হামলা চালানো হয় বলে জানিয়েছেন সাংবাদিকরা। এসময় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা রিপোর্টার্স ইউনিটি কার্যালয়ের ভেতরেই তিন সাংবাদিককে মারধর করেন। এ ছাড়া তছনছ করা হয়েছে কার্যালয়ের চেয়ার-টেবিলসহ আসবাবপত্র। গতকাল সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজশাহী কলেজের হাজী মোহাম্মদ মোহসীন ভবনে রিপোর্টার্স ইউনিটির কার্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। রিপোর্টার্স ইউনিটির সদস্যরা জানান, গত রোববার সকালে রাজশাহী কলেজ ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রাসিক দত্তসহ কয়েকজন নেতাকর্মী তাদের কার্যালয়ে যান। এ সময় তারা জানতে চান, কার্যালয়ে কেন বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি নেই। তারা কার্যালয়ে ছবিগুলো টাঙানোর জন্য নির্দেশ দিয়ে আসেন। পরে সোমবার সকালে তারা আবারও কার্যালয়ে গিয়ে ছবি টাঙানো হয়েছে কি না তা জানতে চান। এ সময় সাংবাদিকরা তাদের জানান,তারা কলেজের অধ্যক্ষকে সংবর্ধনা দেবেন। এবং এ অনুষ্ঠান শেষ করে তারা এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন। কিন্তু ছাত্রলীগের নেতারা তা না মেনে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন। একপর্যায়ে তারা কার্যালয়ের দরজায় তালা দিয়ে বন্ধ করে চলে যান। কিছুক্ষণ পরই সাংবাদিকরা এসে সেই তালা খোলেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা কার্যালয়ে গিয়ে রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক মীম ওবায়দুল্লাহ,দপ্তর সম্পাদক বাবর মাহমুদ ও নির্বাহী সদস্য মোফাজ্জল হোসেনকে ব্যাপক মারপিট শুরু করেন। পরে সাংবাদিকরা কলেজের প্রশাসনিক ভবনের সামনে গিয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন। এ সময় কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর হবিবুর রহমান সাংবাদিকদের নিয়ে রিপোর্টার্স ইউনিটির কার্যালয়ে যান। ডেকে পাঠান ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের। এরপর দু’পক্ষকে নিয়ে রুদ্ধদ্বার বৈঠক শুরু করেন তিনি। দুপুর ২টা পর্যন্ত এই বৈঠক চলে। জানতে চাইলে কলেজ অধ্যক্ষ জানান, দু’পক্ষকে নিয়ে বিষয়টি নিষ্পত্তির চেষ্টা চলছে। এ বিষয়ে তিনি পরবর্তীতে বিস্তারিত জানাবেন। তবে রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি শামসুন্নাহার সুইটি জানান, বিষয়টি সাংবাদিক নেতাদের জানানো হয়েছে। তাদের ছাড়া তারা সমঝোতা করবেন না। এ ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিরও দাবি করেন তিনি। কথা বলতে রাজশাহী কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি নূর মোহাম্মদ সিয়ামকে ফোন করা হলে তিনি ধরেননি। তাই এ ব্যাপারে তার কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি। এদিকে