শ্রীমঙ্গলে রাতের আঁধারে হিন্দু পরিবারের গরু জবাই

প্রকাশকাল- ২১:০৩,আগস্ট ১২, ২০১৭,সিলেট বিভাগ বিভাগে

Sreemangol Cowমশাহিদ আহমদ, মৌলভীবাজার ঃ শ্রীমঙ্গলে ভূনবীর ইউনিয়নের রাজপাড়া গ্রামে রাতের আঁধারে এক হিন্দু পরিবারের গরু জবাই করে মাংস নিয়ে গেছে দুষ্কৃতিকারীরা। এ ঘটনায় গরুর মালিক সজল আচার্য্য শ্রীমঙ্গল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। জানা যায়, গত মঙ্গলবার ভোর রাতে রাজপাড়া গ্রামের সজল আচার্য্যরে গোয়াল ঘরের দরজার নিচ দিকে গর্ত করে ভেতরে প্রবেশ করে একটি বড় ষাঁড় নিয়ে যায়। ষাঁড়টির বাজার মুল্য আনুমানিক ৮০ হাজার টাকা বলে জানান মালিক সজল আচার্য্য। সকাল বেলা গরু চুরি হওয়ার খবর গ্রামে সরব হলে লোকজনের মুখে খবর পেয়ে গ্রামের পশ্চিম পাশে সুইচ গেইট এর উপরে গরুর চামড়া চিহ্নিত করেন তিনি। পরে শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশকে অবহিত করলে শ্রীমঙ্গল থানার এস আই হাফিজুর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। সজল আচার্য্য জানান- তার গ্রামের কিছু লোক তাদের সাথে দীর্ঘদিন ধরে শক্রুতায় লিপ্ত রয়েছে। কিছুদিন আগে তিনি তাদের ২০ একরের বাড়িটি বিক্রি করার উদ্যোগ নিলে গ্রামের হারুন মিয়া, ফুল মিয়া গংরা তাদেরকে ছাড়া বাড়ি বিক্রি না করতে নির্দেশ দেয়। এরপর ভয়ে সজল আচার্য্য তাদের বাড়ি বিক্রি বন্ধ করে দেন। এ নিয়ে গ্রামে রব উঠে সজল আচার্য্য বাড়ি বিক্রি করে গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে যাবে। যা পুরো গ্রামে আলোচনার কেন্দ্র বিন্দুতে পরিণত হয়। সজল আচার্য্য জানান, একটি কোম্পানী এক সাথে ২০ একর জায়গা থাকায় তা ক্রয় করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলো কিন্তু গ্রামের মানুষের আলোচনায় তারা সরে গেছে। এদিকে কিছু গ্রামবাসী সন্দেহ করছেন, সজল আচার্য্যরে বাড়িতে তার ফুপাত ভাই ভূমিহীন হিমু আচার্য্য ও ফুফু প্রণতি আচার্য্য বসবাস করেন। বাড়িটি বিক্রি হয়ে গেলে তাদের আর থাকার জায়গা থাকবে না তাই গ্রামের কিছু লোক দিয়ে তারা বাড়িটি বিক্রি বন্ধ করার চেষ্টা করছেন হয়তো। এদিকে সম্প্রতি গরু চুরি করে মাংস নিয়ে যাওয়াও এই ঘটনারই অংশ বলে মনে করেন সজল আচার্য্য।