সরকার মানসিক স্বাস্থ্যসেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে বদ্ধপরিকর

প্রকাশকাল- ২২:৫৭,অক্টোবর ৯, ২০১৭,জাতীয় বিভাগে

প্রধানমন্ত্রীপ্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বর্তমান সরকার মানসিক স্বাস্থ্যসেবাসহ সকল ধরনের স্বাস্থ্যসেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে এবং মানসিক রোগে আক্রান্ত ব্যক্তির অধিকার ও সুযোগের সমতা বিধানে বদ্ধপরিকর।

আগামীকাল ‘বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস’ উপলক্ষে দেয়া বাণীতে তিনি আজ এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, মানসিক রোগ একটি গুরুত্বপূর্ণ অসংক্রামক ব্যাধি। দেশে মানসিক রোগের কারণে ব্যক্তিগত, পারিবারিক, পেশাগত ও সামাজিক জীবন ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

তিনি বলেন, মানসিক সমস্যার কারণে কর্মদক্ষতা হ্রাস পায় এবং সামগ্রিক উৎপাদনশীলতা ব্যাহত হয়। এ দৃষ্টিকোণ থেকে এবারের বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবসের প্রতিপাদ্য ‘কর্মক্ষেত্রে মানসিক স্বাস্থ্য’ অত্যন্ত সময়োপযোগী হয়েছে বলে প্রধানমন্ত্রী উল্লেখ করেন।

শেখ হাসিনা বলেন, আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকার ২০০১ সালে ঢাকার শেরে বাংলা নগরে জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করে। যা ছিল মানসিক স্বাস্থ্য সেবার অগ্রগতিতে একটি মাইলফলক।

তিনি বলেন, প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে এ প্রতিষ্ঠানটি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে মানসিক স্বাস্থ্যসেবা, মানসিক রোগ চিকিৎসা ও গবেষণার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে। সরকার মানসিক স্বাস্থ্যসেবাকে প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবার সঙ্গে সম্পৃক্ত করেছে।

সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় সরকারি ও বেসরকারি প্রতিটি কর্মস্থল মানসিক স্বাস্থ্যবান্ধব হয়ে উঠবে এবং দেশের প্রতিটি জনগণ সুস্থ শরীর ও সুস্থ মন নিয়ে দেশের অগ্রগতিতে ভূমিকা রাখবেন বলে প্রধানমন্ত্রী আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

তিনি বলেন, ‘প্রতি বছরের মতো এবারো বাংলাদেশে ১০ অক্টোবর ‘বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস’ পালন করা হচ্ছে জেনে আমি আনন্দিত। ’

প্রধানমন্ত্রী ‘বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস’ পালনের সার্বিক সাফল্য কামনা করেন।